icon

ত্রিপুরা লোককাহিনী: বাঘ এবং একটি কচ্ছপ

Jumjournal

Last updated Jun 21st, 2021 icon 476

একদিন এক বাঘ খাবারের খোঁজে বের হল। সে সারাদিন শিকারের খোঁজ করল।

কিন্তু একটি শিকারও পেল না। এ কারণে বাঘটি খুবই ক্ষুধার্ত ছিল। সন্ধ্যায় বাঘটি নিজ ডেরায় ফিরে চলল। ডেরায় ফেরার সময় একটি কচ্ছপের সঙ্গে বাঘের দেখা হল।

এর আগে বাঘটি কখনো কচ্ছপ দেখেনি। বাঘ সেখানে কিছুক্ষণ দাড়াল। অবাক হয়ে কচ্ছপকে দেখল। কচ্ছপও বাঘকে দেখার জন্য খোলস থেকে মাথা বের করল।

কচ্ছপের ঘাড় আর মাথা দেখার পর বাঘ ভাবল সে কচ্ছপকে খাবে। সে চিন্তা করল, অন্য কোনো শিকার যেহেতু পাইনি, তাই আজ আমি এই ছোট প্রাণীটিকেই খাব।

যেই চিন্তা সেই কাজ। বাঘ কচ্ছপকে ধরে ফেলল এবং কামড়াতে শুরু করল। কচ্ছপের খোলস ছিল খুব শক্ত। তাই বাঘের ধারালো দাঁতও এতে বিধল না।

বাঘ বারবার চেষ্টা করল। কিন্তু কচ্ছপের গায়ে একবারও কামড় বসাতে পারল না।
বাঘের এই দুরবস্থা দেখে কচ্ছপ মাথা বের করে বলল, তুমি এভাবে আমাকে খেতে পারবে না।

তুমি এক কাজ করো, আমাকে পানিতে ছেড়ে দাও। তবেই আমি খাওয়ার উপযুক্ত হব। এ কাজটা তুমি করে দেখ, হাতেনাতে ফল পাবে।

বাঘও মনে করল, কচ্ছপটাকে পানিতে ছেড়ে দিই, তাহলে এটা নরম হবে, খাওয়ার উপযুক্ত হবে।

তখন এটাকে রসিয়ে রসিয়ে খাওয়া যাবে। যেই ভাবা সেই কাজ। বাঘ কচ্ছপকে ধরে কাছের জলাশয়ে নিয়ে গেল।

তারপর কচ্ছপকে পানিতে ছুড়ে ফেলল। পানিতে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই কচ্ছপ হাত-পা-মাথা বের করল।

তারপর মনের আনন্দে সাঁতরাতে লাগল। সাঁতরাতে সঁতরাতে মুহুর্তের মধ্যেই কচ্ছপ বাঘের নাগালের বাইরে চলে গেল।

আর জলাশয়ের ধারে দাঁড়ানো বাঘের দিকে তাকিয়ে হাসল।

বাঘ কচ্ছপকে মনের আনন্দে সাঁতরাতে আর হাসতে দেখে বুঝল, শিকার হাতের নাগালের বাইরে চলে গেছে।

তার আর কিছুই করার নেই। সে বোকা বনে গেছে। লজ্জা পেয়ে সে ডেরায় ফিরে গেল।

লেখক : আবু রেজা

তথ্যসূত্র : ত্রিপুরা আদিবাসী লোককাহিনী

জুমজার্নালে প্রকাশিত লেখাসমূহে তথ্যমূলক ভুল-ভ্রান্তি থেকে যেতে পারে অথবা যেকোন লেখার সাথে আপনার ভিন্নমত থাকতে পারে। আপনার মতামত এবং সঠিক তথ্য দিয়ে আপনিও লিখুন অথবা লেখা পাঠান। লেখা পাঠাতে কিংবা যেকোন ধরনের প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন - [email protected] এই ঠিকানায়।

আরও কিছু লেখা

Jumjournal

Administrator