যেভাবে অবদান রাখবেন

ক) বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখির মাধ্যমেঃ

আপনার বিচরণ যদি সাহিত্যে হয়, অথবা যদি হয় দর্শন কিংবা বিজ্ঞানে, দেশ-বিদেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক বিষয়ে থাকে যদি আপনার ভাল জানা শোনা বা আগ্রহ কিংবা বিশ্বের ইতিহাস অথবা শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর যদি আপনি নিয়মিত রাখেন তবে আপনার জন্য জুম জার্নাল হতে পারে এক অসাধারণ প্লাটফর্ম। এছাড়াও, আমাদের সমাজের স্বকীয়তা নির্ধারণকারী শিল্প-সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে পারেন আপনি আমাদের সাইটের মাধ্যমে। এমনকি মানব ইতিহাসের বিখ্যাত ব্যক্তিত্বদের নিয়ে লিখতে পারেন। হাজির হতে পারেন বিভিন্ন বিষয়ে আপনার যুক্তি-তর্ক-গল্প নিয়ে।

সর্বোপরি পার্বত্য চট্টগ্রামের ইতিহাস, ঐতিহ্য, ভাষা, শিল্প-সংস্কৃতি, সাহিত্য ইত্যাদি বিষয় নিয়ে লেখালেখির মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে পারেন। সারা দুনিয়ার লক্ষ মানুষ আপনার লেখা পড়বে, আপনার লেখার মাধ্যমে জানতে পারবে পার্বত্য চট্টগ্রামকে, জানতে পারবে পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের সুখ-দুঃখ আর আশা-আকাঙ্ক্ষার কথা, অব্যক্ত যন্ত্রণার কথা।

খ) আমাদের কাছে পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সরবরাহ করার মাধ্যমে। সেগুলো হতে পারে গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু সহজে পাওয়া যায় না এমন বই, ছবি, গান, ভিডিও ইত্যাদি।

গ) জুম জার্নাল সাইটের বিভিন্ন টেকনিক্যাল, তথ্যগত, ভাষাগত ভুল এবং ভুল বানান ধরিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে।

ঘ) আপনার আশেপাশের সবাইকে জুম জার্নাল এর কথা জানিয়ে দিয়ে। আমরা জুম্মদের সুখ-দুঃখের কথা পৌঁছে দিচ্ছি সারা পৃথিবীর মানুষের কাছে।

ঙ) তরুণদের জুম জার্নালে লেখালেখির মাধ্যমে জ্ঞানের চর্চায় উদ্ভুদ্ধ করে।

চ) “জুম জার্নাল” কে কীভাবে আরো বেশি সমৃদ্ধ করা যায়, পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের সুখ-দুঃখের কথা, অধিকারহীন ও বঞ্চনার শিকার হওয়া মানুষের কথা কীভাবে সবার কাছে পৌঁছে দেওয়া যায় এ বিষয়ে আপনার গুরুত্বপূর্ণ মতামত প্রদানের মাধ্যমে।

ছ) যেভাবে আপনি আপনার অবদান রাখতে ইচ্ছা হয় ঠিক সেভাবেই অবদান রাখতে পারবেন।

যেকোন বিষয়ে সহায়তা পেতে কিংবা অবদান রাখতে গেলে যোগাযোগ করুন jumjournal@gmail.com এই ঠিকানায়। আপনার আমার সবার বিন্দু বিন্দু সহযোগিতায় আমাদের প্রাণ প্রিয় জন্মভূমি পার্বত্য চট্টগ্রামকে সারা পৃথিবীর মানুষের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে জুম জার্নাল হয়ে উঠবে শক্তিশালী এক মাধ্যম।